ক্যানিংয়ে ঢালাই রাস্তা তৈরী নিয়ে বচসা,মাথা ফাটলো যুবতৃণমূল কর্মীর।

0
69

সুভাষ চন্দ্র দাশ, ক্যানিংঃ—গ্রামের যাতায়াতের একটি কংক্রীটের ঢালাই রাস্তা তৈরী করা কে কেন্দ্র করে প্রথমে বচসা এবং পরে সংঘর্ষ হলে গুরুতর জখম হন যুবতৃণমূল কংগ্রেসের দুই কর্মী। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার সকালে দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার ক্যানিং থানার হাটপুকুরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ডেভিসাবাদের মরাপিয়া গ্রামে।গুরুতর জখম অবস্থায় দুই যুব তৃণমূল কর্মী সমর্থক ফিরোজ সরদার ও সফিউল্লা সরদার ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে শুক্রবার সকালে হাটপুকুরিয়া গ্রামপঞ্চায়েত এলাকার সরদার পাড়া মসজিদ হইতে রহমতুল্লার বাড়ী ভায়া মনসুর সরদারের বাড়ী পর্যন্ত একটি কংক্রীট ঢালাই রাস্তার কাজ শুরু হয়। অভিযোগ সেই সময় স্থানীয় প্রভাবশালী তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা সিরাজ ঘরামীর নেতৃত্বে নূর ইসলাম সরদার,নূরমহম্মদ সরদার,জিয়ারুল সরদার,জাহাঙ্গীর সরদার সহ আরো বেশ কয়েকজন রাস্তা তৈরীর বরাত পাওয়া ঠিকাদার অনুপমের কাছে রাস্তার সিডিউল দেখতে চায় এবং আরো ৬০ ফুট রাস্তা অতিরিক্ত বাড়াতে হবে বলে হুমকী দেয়।ঠিকাদার সিডিউল দেখালেও তাকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে চলে যায় তৃণমূল নেতৃত্বরা।
আরো শুক্রবার সাময়িক ভাবে বচসা মিটে গেলেও পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে শনিবার সকালে সিরাজ ঘরামী লাঠী,রড,ধারালো দা সহ তার দলবল নিয়ে স্থানীয় নূরুল হক সরদারে বাড়ীর মধ্যে ঢুকে অতর্কিতে চড়াও হয়ে এলোপাথাড়ি মারধোর শুরু করে। নূরুল হকের চিৎকারে পরিবারের অন্যান সদস্যরা ছুটে আসলে অভিযুক্তরা ফিরোজ সরদাররে মাথায় লোহার রড দিয়ে মারলে রক্তাক্ত অবস্থায় অঞ্জান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে ফিরোজ।মারধোরে হাত থেকে ফিরোজ কে উদ্ধার করতে গিয়ে রেহাই পাননি সফিউল্লা সরদার।অভিযুক্তরা তাকেও বেধড়ক মারধোর করে বলে অভিযোগ। এরপর অভিযুক্তরা ঘরের মধ্যে আলমারী ভাঙচুর করে নগদ পঞ্চাশ হাজার টাকা লুঠ করে নিয়ে পালিয়ে যায় এবং হুমকী দিয়ে অভিযুক্তরা জানিয়ে যায় থানা পুলিশ করলে ফল মারাত্মক হবে এমনই দাবী ঘটনায় আক্রান্তদের।
খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহতদের কে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়।আঘাত গুরুতর হওয়ায় যুবতৃণমূল কংগ্রেসের দুই কর্মীর অবস্থা আশাঙ্কা জনক।
ঘটনা প্রসঙ্গে ক্যানিং যুবতৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি পরেশ রাম দাস বলেন “আমাদের দুজন কর্মী গুরুতর জখম অবস্থায় ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।ঘটনা সম্পর্কে পুলিশ প্রশাসন কে জানিয়েছি তদন্ত করে আইনত পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য।”
অন্যদিকে ক্যানিং ব্লক তৃণমূল সভাপতি শৈবাল লাহিড়ী বলেন “পারিবারিক সমস্যা কে কেন্দ্র করে হাটপুকুরিয়ায় একটি ঘটনা ঘটেছে।সেই ঘটনাকে রাজনীতীর আঙিনায় এনে ফায়দা তুলতে চাইছে এলাকার সমাজ বিরোধীরা।পুলিশ কে ঘটনার বিষয়ে জানিয়ে সঠিক তদন্তের জন্য বলেছি।”
ঘটনার বিষয়ে আক্রান্তরা ক্যানিং থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ক্যানিং থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here