গ্রামের পথে পথে ভাদু শিল্পীরা।

0
75

গৌরনাথ চক্রবর্ত্তী, পূর্ব বর্ধমানঃ রাঢ়বঙ্গের মানুষের কাছে ভাদ্রমাস হল এক অবসরের মাস।
পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়া থানার দেপাড়া গ্রামের একটি দলএই অলস ভাদ্র মাসে ভাদু প্রতিমা নিয়ে গ্রামে গ্রামে ঘুরে ভাদু নাচ দেখায় দুটো পয়সার জন্য।সারা ভাদ্র মাস ধরে চলে ভাদু উৎসব। ১লা ভাদ্র থেকে শুরু হওয়া এই উৎসবের শেষ ভাদ্র মাসের সংক্রান্তির দিন বিকালে পুজোর পরে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে।ভাদু গানে একটি ছেলে বা মেয়ে ভাদু সেজে কোমরে ভাদু পুতুল নিয়ে নাচ করে।বাজে ঢোল,হারমোনিয়াম।
জানা যায়,ভাদু মানভূমের রাজার মেয়ে।মনে করা হয় পঞ্চকোট রাজ পরিবারের নীলমণি সিং দেও-র তৃতীয় কন্যা ভদ্রাবতীই ভাদু।তাঁর বিয়ে ঠিক হওয়ার পর হবু স্বামীর মৃত্যু হয়।সেই শোকে ভদ্রাবতীও হবু স্বামীর সঙ্গে সহমরণে যান।ভদ্রাবতীকে স্মরণীয় করে রাখতেই নীলমণি সিং দেও ভাদু গানের প্রচলন করেন।
অনেকের মতে,প্রজারাই রাজাকে ভাদু পুজো করার প্রতিশ্রুতি দেন।অন্য আর একটি মতে,ভাদু ছিলেন হেতমপুরের রাজার মেয়ে।তাঁর অকাল মৃত্যুকে স্মরণ করতেই ভাদু উৎসব।

কাটোয়া ১ নং ব্লকের সুদপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের দেপাড়া গ্রামের একটি দল গ্রামে গ্রামে ভাদু গান গেয়ে গ্রাম প্রদক্ষিণ করছে।শনিবার পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়া ২ নং ব্লকের জগদানন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মুস্থূলী গ্রামে তাদের সাক্ষাৎ পাওয়া যায়।সেখানে ১২ জন সদস্যের একটি টিম মাটির তৈরি ভাদু প্রতিমা নিয়ে
ভাদু গান পরিবেশন করছেন।১২ জন সদস্যের মধ্যে তিনজন মহিলাও আছে।

তারপর তারা আমডাঙ্গা ও ঘোড়ানাশ গ্রামেও ভাদু গান পরিবেশন করবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here