দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার হিলি সীমান্তের শুন্য রেখায় পুজোয় মেতে উঠছে বাসিন্দারা।

0
793

দঃ দিনাজপুর, বিশ্বদীপ নন্দীঃ- দেখতে দেখতে বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দূর্গা পুজো চলে এলো। বাংলার আট থেকে আশি হাজার এই উৎসবে মতে উঠবে। এই দূর্গা পুজোর ব্যাপ্তি বঙ্গজীবনে এতটাই যে কোন সীমান্ত, কোন কাঁটাতার এই উৎসবে সমিল হওয়ার থেকে বাঙালী আটকাতে পারে না। যেমন দেখতে পাওয়া যাবে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার হিলির ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের শুন্যরেখায় অবস্থিত উঁচা গোবিন্দপুরে। কাঁটাতারের ওপারে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের মাঝে অবস্থিত এই গ্রামটিকে সারা বছর সীমান্ত রেখার মাঝে আটক থাকলেও এই গ্রামের বাসিন্দাদের সীমান্তের কোন বাঁধাই আটকতে পারেনি দূর্গাপুজোর আনন্দে আনন্দিত হওয়ার থেকে। বিগত ৬৬ বছর ধরে কাঁটাতারের মর্ধবর্তী এলাকার এই অঞ্চলের মানুষ দূর্গা পুজো করে আসছে। শুধু তাই নয় জানা গেছে পুজোর কটা দিন সীমান্তের ওপার থেকে বিরামপুর,কাঁটলা,চরকাই,ফুলবাড়ি সহ চার-পাঁচটি গ্রাম ও শহর থেকে হিন্দু -মুসলিম উভয় সম্প্রদায়ের মানুষের এসে উঁচা গোবিন্দপুরের পুজোয় সামিল হন। গোবিন্দপুরের প্রতিবেশী বাংলাদেশী গ্রামগুলির বাসিন্দারা এই পুজোয় ফল,ফুল, দুধ প্রভৃতি দিয়ে এই গ্রামের পুজোয় সামিল হন। ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের মাঝের এই গ্রামের পুজোকে একাধারে সীমান্ত আটকাতে পারেনি ঠিক তেমন ভাবেই হিন্দু-মুসলমান উভয়ের উপস্থিতি এই পুজোকে সারা রাজ্যের সকল পুজোর থেকে ভিন্ন করে অনন্য রুপ দিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here