নবদম্পতিকে গিয়ে আশীর্বাদ করে এলেন বলরামপুর সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক!

0
180

পুরুলিয়া, শিবপ্রসাদ মন্ডলঃ- গত মার্চ মাসে দিনক্ষণ ঠিক হয়েও আঠারো বছর পূর্ণ না হওয়ায় বিয়ে বন্ধ হয়েছিল টুম্পার। সচেতন করতে এগিয়ে এসেছিল ব্লক প্রশাসন।সম্প্রতি টুম্পার বিয়ের বয়স পূর্ণ করে দুহাত এক হোলো।অষ্টমঙ্গলা করতে বাড়ি এসেছে। খবর পেয়ে নবদম্পতিকে গিয়ে আশীর্বাদ করে এলেন বলরামপুর সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক।

টুম্পা কর্মকার বাড়ি পুরুলিয়া জেলার বলরামপুর ব্লক এলাকার ডুমারী গ্রামে। বয়স কম থাকার কারণে তার পরিবারকে কম বয়সে বিয়ে দেওয়ার অসুবিধা এবং সরকারি প্রকল্পগুলিতে সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে বলে বিস্তারিত বুঝিয়ে বলে মার্চ মাসে বিয়ে আটকে দিয়েছিলেন বলরামপুর ব্লক সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক। মেয়ে বাবা বলরামপুর সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিকের কথা মেনে আঠারো বছর পূর্ণ হলে মেয়ের বিয়ে দিলে আজকে অষ্টমঙ্গলা তে নবদম্পতি কে আশীর্বাদ করতে, নিজের হাতে উপহার নিয়ে মেয়ের বাপের বাড়ি ডুমারী গ্রামে যান বলরামপুর সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক ধ্রুবপদ শান্ডিল্য |তিনি নবদম্পতিকে আশীর্বাদ করার পাশাপাশি তাদেরকে উপহার তুলে দেন এবং টুম্পাকে এলাকার আদর্শ হিসাবে চিহ্নিত করেন। এছাড়াও তিনি বলেন দু -এক দিনের মধ্যেই টুম্পা কন্যাশ্রী র টাকা পেয়ে যাবে এবং ও ভবিষ্যতে পড়াশুনা করতে চাইলে ওর পাশে থাকার আশ্বাস দেন। মেয়ের বাবা রূপচাঁদ কর্মকার কে এই বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন আমিও বি ডি ও সাহেবের কাছে সমস্ত কথা শুনে মেয়ের বিয়ে আটকে দিয়ে একটু কষ্ট পেলেও আজকে বি ডি ও সাহেব বাড়িতে এসে আমার মেয়েকে আশীর্বাদ করায় খুব খুশি। নববধূ টুম্পা কর্মকার বলেন আমি খুব খুশি এবং এর পর আমি গ্রামের সকলের মধ্যে প্রচার করবো যাতে কোন মেয়ের বিয়ে আঠারো বছরের আগে না হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here