নিস্পলক চেতনায় : অমিতাভ দত্ত।

0
104

মনেতে মাধুরী ; ওগো মুখরিত কেতকী ,
তুমি সুদীপ্তা অর্পিতা দীপন দীপ্তি দীপিকা।
ঘন আঁধারের চিত্রপটে তূমি নিবেদিতা,
তুমি ছায়াবীথির অরণ্য মাঝে অর্পিতা ছায়াবৃতা।
তোমায় দেখেছি দিগন্ত রেখায়
দৃঢ় প্রত্যয়ে,
আমারই আঁখিপটে ; সুদূরের অসীম আকাশ মাঝে।
শত সুন্দরী সাজে সজ্জিত, আটপৌরে সাজে।
গোপন বান্ধবী সম উদভ্রান্ত বাউলে বাতাসেরা,
আজো দেয়নিকো ওগো কোনই বারতা ,
এ পিপাসিত বক্ষের কর্ণকুহরে
আজিও হায় ,
শুধুই খুঁজি ফিরি তারে আজো,
পরিশ্রান্ত পথিক আমি, দিশেহারা নিরুপায়।
তুমি রয়েছো ওগো বেষ্টিতা বর্মাবৃতা ,
সুদৃঢ় সুকঠিন প্রহরায়।
ওগো অর্পিতা সুবাসিতা অনুরণিত স্তব্ধ সুর,
ছলনাময়ী এ প্রকৃতির অপরূপা সুন্দরী রূপ,
ক্ষীণ আলোকে দেখেছি তোমায় ওগো,
তোমারই বৈচিত্র্যময় শৈল্পিক বিচিত্রিতা মুখ।
নিশ্চল নিস্তব্ধ নৈঃশব্দ্য মাঝে,
কম্পিত ক্রন্দিত দুখিত তাপিত
ক্রন্দনরোল,
বক্ষপঞ্জরেরই পরতে পরতে ঘুরে ফেরে,
হায় ; ওগো তুমি , নৈঃশব্দেরই কুহকিনী রহস্যময়ী।
তুমি প্রকৃতি, তুমি অর্পিতা, তুমি সুভাষিতা কেতকী ফুল,
তুমি সুখদায়িনী নারী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here