প্রতিটা সম্পর্কে বন্ধুত্ব থাকা দরকার।

0
1522

আজ ফ্রেন্ডসিপ ডে। প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও পালিত হচ্ছে দিনটি। যে যেভাবে পারে দিন টি কে সেলিব্রেট করে। আসুন প্রথমে জেনে নেওয়া যাক কিভাবে দিন টি এলো। প্রতি বছর আগস্ট মাসের প্রথম রবিবারে সারা বিশ্বজুড়ে বন্ধু দিবস পালন করা হয়। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না বন্ধু দিবস কিভাবে এলো। আর বন্ধুত্বটাই বা কি? এক অকারণ অনুভূতির নাম বন্ধুত্ব? হাতে হাত রেখে পাশাপাশি চলাটাই বন্ধুত্ব? নাকি সব শেইয়ারিং আর কেয়ারিং-এর মাঝেই সীমাবদ্ধ বন্ধুত্ব। কেউ কেউ তো আবার বলেন- বন্ধুত্ব মানে বয়সের সাথে বয়সের মিল নয়, বন্ধুত্ব মানে মনের সাথে মনের, গোপনে হয়ে যাওয়া পরিচয়… ১৯৩৫ সাল থেকেই বন্ধু দিবস পালনের প্রথা চলে আসছে আমেরিকাতে।
জানা যায় ১৯৩৫ সালে আমেরিকার সরকার এক ব্যক্তিকে হত্যা করে। দিনটি ছিল আগস্টের প্রথম শনিবার। তার প্রতিবাদে পরের দিন ওই ব্যক্তির এক বন্ধু আত্মহত্যা করেন। এরপরই জীবনের নানা ক্ষেত্রে বন্ধুদের অবদান আর তাদের প্রতি সম্মান জানানোর লক্ষেই আমেরিকান কংগ্রেসে ১৯৩৫ সালে আগস্টের প্রথম রোববারকে বন্ধু দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত নেন। আর বর্তমানে এটি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে বিশ্বের বহু দেশেই। যাদের প্রতি মুহূর্তের সঙ্গী বন্ধু আর বন্ধুতা, তারা একমুহূর্তেও জন্যও মন থেকে আড়াল করতে পারেন না বন্ধুদের। জীবনের সংকটে এরা ছুটে যান বন্ধুদের কাছে। আবার আনন্দ, উল্লাস কিংবা দিন শেষের অবসরেও এরা ভালোবাসেন বন্ধুত্বের কলতান শুনতে। বন্ধুত্বের পরিপূরক সম্পর্কের মাঝে এরা খুঁজে পান জীবন যাপনের ভিন্ন রস।
আসলে সত্যিকারের বিন্ধুত্ব এমন একটা সম্পর্ক যার মধ্য দিয়ে সম্পর্ক গুলো সুন্দর ভাবে বহমান থাকে চিরকাল। নিজেদের সুখ দুঃখ গুলো সুন্দরভাবে শেয়ার করে নেওয়া যায় বন্ধুর সঙ্গে। যে কথা গুলো বাড়ির কাউকে বলা যায় না সেগুলো খুব সহজেই বন্ধুকে বলে ফেলা যায়।
জীবনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত চলার পথে ধাপে ধাপে অনেক বন্ধু আসে, অনেক বন্ধুত্বের সম্পর্ক তৈরি হয়। কিন্তু সত্যিকারের বন্ধুত্ব হাজার বাধা বিপত্তির মধ্যেও শেষ জীবন পর্যন্ত থেকে যায়। বন্ধুত্বে বয়স কিংবা দূরত্ব কখনোই বাধা হয়ে দাঁড়ায় না।
প্রতিটি সম্পর্কে বন্ধুত্ব থাকা ভীষন জরুরি, কারন এই সম্পর্কের মধ্য দিয়ে সহজেই একজন মানুষের সঙ্গে মিশে যাওয়া যায়, তাঁর সুখ দুঃখ যন্ত্রনা গুলোকে সহজেই অনুভব করা যায়। শুধু তাই নয়, পারিবারিক ক্ষেত্রে পিতা-পুত্র, মাতা-পুত্র, ভাই-বোন, ভাই-দাদা সকলের সম্পর্ক গুলোর মধ্যে শ্রদ্ধার পাশাপাশি যদি সমান্তরাল ভাবে বন্ধুত্বের সম্পর্ক থাকে তাহলে জীবনের সম্পর্ক গুলো আরো সুন্দর হয়ে ওঠে, যদিও এক্ষেত্রে এক একজনের ভাবনা একএক রকম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here