প্রতিভাবান অভিনেত্রী পুজা চক্রবর্তী’র একান্ত সাক্ষাৎকার।

0
2811

গত ১৩ই সেপ্টেম্বর বালুরঘাটে ভারতীয় গন নাট্য সংঘের শপথ শাখার ” অন্য ঝুমুর ” নাটকটি প্রায় ৬ বছর পর আবারও পরিবেশিত হয় বালুরঘাটের শতাব্দী প্রাচীন নাট্যমন্দিরের নাট্য মঞ্চে। এই নাটকের সকল চরিত্র দর্শকদের কাছে প্রশংসা পেলেও নাটকটির প্রধান চরিত্র রাধাবালা চরিত্রে অভিনয় করে বালুরঘাট শহরের নাট্যমোদী মানুষের কাছে বহুল প্রশংসিত হচ্ছে নাটকের অভিনেত্রী পুজা চক্রবর্তী। দর্শকদের মতে পুজা চক্রবর্তী রাধাবালা চরিত্রে একদম নিজেকে একবারে রাধাবালা চরিত্রে ডুবিয়ে ফেলতে পেরেছেন। তাই তার পরদিনই পুজা চক্রবর্তীর অভিজ্ঞতার কথা জানতে সব খবরের দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি বিশ্বদীপ নন্দী মুখোমুখি হলেন পুজা চক্রবর্তীর। নিলেন তার একান্ত সাক্ষাৎকার-

সব খবর- কাল আপনি একটি নাটকে অভিনয় করেছেন যা নিয়ে বালুরঘাটের নাট্যমোদী দর্শকদের মধ্যে সারা পড়েছে এটা আপনি কি চোখে দেখছেন?

পুজা- এটা আমার কাছে ইশ্বরের আশির্বাদের মত যে সবাই এই বিষয়টিকে সমর্থন করেছে। আসলে রাধাবালা যে চরিত্রটি ছিল সেটা আমার কাছে ভীষণ চ্যালেঞ্জিং চরিত্র ছিল একই সাথে ভীষণ প্রিয় একটা চরিত্র। আমি চেষ্টা করেছি চরিত্রের সাথে ন্যায় করার সেটা যে মানুষ এত সাদরে গ্রহণ করেছে সেটা আমার কাছে ভগবানের আশির্বাদ ছাড়া আর কিছুই নয়।

সব খবর- এর আগেও কি নাটক করেছেন?

পুজা- হ্যাঁ এর আগেও আমি নাটক করেছি স্কুল লাইফে। এবং আমি যেহেতু নর্থ বেঙ্গল ইউনিভার্সিটির স্টুডেন্ট ইউনিভার্সিটিতে থাকা কালীনও আমি নাটক করেছি ইউনিভার্সিটিতে। বনমালা থিয়েটারের সাথেও আমি যুক্তছিলাম।

সব খবর- মন্মথ রায়ের স্মৃতি বিজরিত নাট্যমন্দিরে নাটক করে আপনার কেমন লাগল?

পুজা- ভীষনই ভালো। কারন বালুরঘাট আমরা জানি নাট্যমোদীর একটু শহর তো এই রকম একটা ঐতিহাসিক জায়গা যেখানে প্রেক্ষাপট বলা যায় ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট। এখানে নাটক করতে ভীষনই আমার ভালো লেগেছে। বিশেষ করে আমার চরিত্রটা। রাধাবালা চরিত্রটায় অভিনয় করতে আমার খুব ভালো লেগেছে।

সব খবর- দর্শকদের কেমন সারা পেলেন?

পুজা-দর্শকদের সারা তো অনেক পড়ে পেয়েছি। আগে একটু বলি সবথেকে বে আমাদের শপথের যে টিম মেম্বার। পুরো শপথের যে পরিবারটা তাদের সারা। আমি নতুন হওয়া সত্বেও তারা আমাকে অনেক বিষয়ে হেল্প করেছে। অনেক কেন প্রত্যেকটা বিষয় হেল্প করছে। জেঠু মানে আমাদের হারান জেঠু আর কি উনি তো আমাকে হাতে ধরে সবটা শিখিয়েছেন। এরপর আসছে দর্শকের পার্ট। তো দর্শকের কাছে আমি কাল মঞ্চে খুবই সাপোর্ট পেয়েছি। যার জন্য কোথাও কোন জড়তা আমার মধ্যে কাজ করেনি আমি খুব সাবলীলভাবে বিষয়টা করতে পেরেছি।

সব খবর – আজ সকাল থেকে কোনো রেসপন্স পেয়েছেন দর্শকদের?

পুজা- হ্যাঁ। সকাল থেকে কেন কাল রাত্রির থেকে পেয়েছি। আজ সকালেও পেয়েছি। অনেকে বলছে ভালো, বেশ ভালো। বলেছে এগিয়ে যেতে। তো প্রশংসা গুলো আমাকে বোঝাচ্ছে যে আমি এই বিষয়টি ছেড়ে দেবো না।

সব খবর- আগামীর চিন্তাভাবনা কি?

পুজা- আগামীর চিন্তা ভাবনা বলতে। আমি তো পড়াশোনার সাথে যুক্ত। তাই পড়াশোনার সাথে সাথে এই বিষয়টা আরও যদি সুযোগ পাই তো এই বিষয়টা করে যেতে চাই থেমে যেতে চাইনা।

সব খবর – এই রাধা বালার সাথে নিজেকে কতটা রিলেট করতে পারছেন?

পুজা- ভীষণ ভাবে। কারন আমিও খুব সংস্কৃতিমনস্ক ও ডেস্পারেট এবং ওই চরিত্রের মধ্যে কোথাও যেন নিজেকে খুঁজে পাওয়া একদিক থেকে।

সব খবর – ধন্যবাদ জানাই আপনাকে। আগামি দিনে আপনার আরো সাফল্য কামনা করি। সব খবর-এর পক্ষ থেকে রইল আন্তরিক শুভেচ্ছা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here