বুধবার সকাল থেকে দৈনন্দিন সবজি বাজার, মাছ ,চাল, আলু, পেঁয়াজ প্রভৃতি দোকানে দেখা গেল মানুষের উপচে পড়া ভিড়।

0
177

পঃ মেদিনীপুর, নিজস্ব সংবাদদাতাঃ- করোনা ভাইরাস রোধে গত সোমবার দেশজুড়ে শুরু হয়েছে লকডাউন প্রক্রিয়া।গত মঙ্গলবার রাত্রি আটটা নাগাদ জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে গিয়ে এই কর্মসূচির ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ।মঙ্গলবার রাত্রি বারোটার পর থেকে 14 ই এপ্রিল পর্যন্ত এই লকডাউন প্রক্রিয়া বজায় থাকবে সারা দেশ জুড়ে ।আপৎকালীন ব্যবস্থার জন্য থাকবে সমস্ত রকম সুযোগ-সুবিধা ।যেমন দৈনন্দিন জিনিসপত্র, চিকিৎসাব্যবস্থা, ব্যাংকিং ব্যবস্থা,সবকিছুই পরিষেবা পাবে সাধারণ মানুষ।তবে সর্ব ক্ষেত্রেই খুব প্রয়োজন ছাড়া মানুষ যাতে বেশিরভাগ না বাইরে বেরান তা আবেদন ও রাখা হয় এদিন ।বুধবার সকাল থেকে দৈনন্দিন সবজি বাজার, মাছ ,চাল, আলু, পেঁয়াজ প্রভৃতি দোকানে দেখা গেল মানুষের উপচে পড়া ভিড়।কারণ এই লকডাউন প্রক্রিয়ায় 21 দিনের হওয়ায় দৈনন্দিন রসদ সময় যদি না পাওয়া যায় এই ভেবে আগাম বাড়িতে সঞ্চয় করে নিচ্ছেন সবাই ।ভাড়ারে টান পড়ার আগে পিপড়ের মতন সবকিছু গুছিয়ে নিচ্ছেন তারা ।তাই নিয়মের তোয়াক্কা না করে ভিড়ে ঠেসাঠেসি ঘেষাঘেষি করে বাজার করতে দেখা গেল সাধারণ মানুষকে ।তেমনি চিত্র ফুটে এল পশ্চিম মেদিনীপুরের বেলদাতে,যেখানে এর আগেই রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে শুরু করে ব্লক স্বাস্থ্য দপ্তরের আধিকারিকেরা নানান সচেতনতামূলক হিসেবে সাধারণ মানুষকে সচেতন করে আসছে,শুধু তাই নয় এই সচেতনতা পথে বিভিন্ন ক্লাব সংগঠন থেকে শুরু করে সমাজসেবী সংগঠন গুলো পথে নেমেছে, তারপরই এই করুণ চিত্র দেখে অনেকে কটাক্ষ করছেন এইসব অসচেতনতার ব্যক্তির উপর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here