হাততালি : শুভঙ্কর দাস।

0
253

অথচ আমরা এরকম চাই না!
মাতৃজঠর থেকে মাটিতে প্রবেশমাত্র কে হাততালি দিয়েছিল,কারও মনে থাকে!
অথবা সত্যি কেউ হাতাতালি দেয়!
জন্মের সূচনা থেকে কোথায় বসে আছ,কীভাবে পরিমাপ করবে!
হাততালি না পেলেও,তোমাকে হাততালি দিতেই হবে! না-বুঝে হাততালি দেওয়ার মত সুখ আর নেই,
কারণ এতে হাতের ওপর হাত কীভাবে শব্দ তুলছে
তাই বড় হয়ে ওঠে!
বুঝে হাততালি ক’জন দেয়!সে বিষয়ে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালনায় গবেষণা হওয়া দরকার,এত পন্ডিত,এত বোদ্ধা,এত লিখিয়ে কী কাজে লাগল তাহলে!

যদি কুমির হয়ে তাকাও, আমরা নেমে যাব জলে,
যদি সিংহ হয়ে দাও গর্জন,আমরা শেয়ালের দলে,
যদি গোবরেপোকা হও,আমরা গরুর ধরি ল্যাজ,
যদি কালোরঙা কোট হও,আমরা ঝকমকি ব্যাজ!

যে যাই বলুক,মাঠে-মঞ্চে-দোকানে-রাজপথে
আমরা হাততালি দেব,হাত কেটে নিলেও কনুই দিয়ে শব্দ তুলব, কনুই কাটা পড়লে,মাথা ঠুকে ঠুকে করব উল্লাস!

এত অন্ধ চরিপাশে,হাতে ধরা থাক গুচ্ছ গুচ্ছ আয়না
আমরা হাততালি পেতে চাই,বেঁচে থাকার জন্য হাততালি দিতে চাই
অথচ আমরা এরকম চাই না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here